মে’য়েদের স’তি প’র্দা কখন ফা’টে জেনে নিন?

0
6

একজন চিকিৎ,সকই কেবল সঠিক,ভাবে বলতে পারবেন একজন মে’য়ের স’তী,চ্ছদ (হা’ইমেন) ফে’টে গেছে কিনা৷

তবে কিছু ল,ক্ষণ থেকে আপ,নি অনু,মান করতে পারেন স’তী,চ্ছদ সত্যি,কার অর্থেই ফে’টে গেছে

নাকি এখনো বিদ্য,মান রয়েছে৷’

যে লক্ষণ,গুলো তিনি বর্ণনা ক,রেছেন, যার কয়ে,কটি উ,ল্লেখ করা হলো– ১. দুই পা ফাঁ’ক করে বসে আঙু,লের সাহায্যে ভ’গা,ঙ্কুরের ভাজ দু,টিকে দুই দিকে স,রিয়ে ধরুন এবং

ছোট এক,টি আয়না যো’নির সামনে রেখে লক্ষ্য করুন রিং আকা,রের পাতলা একটি পর্দা দেখতে পান কি,না?যদি দেখা যায়, তবে বুঝ,বেন আপনার সতী’চ্ছদ এখনো ঠিক আছে৷

২. স’তী,চ্ছদ ছি’ড়ে যাবার সময় (সাধা,রণত) র’ক্তপাত হয় এবং সামান্য ব্য’থা-য’ন্ত্রণা অনু,ভূত হয় এবং তা থেকেই জানতে পার,বেন আপ,নার স’তীচ্ছ,দ কবে ফে’টে,ছিল৷

তিনি আরো লিখে,ছেন, ‘‘মেয়ে,দের সতী’চ্ছদ শারী’রিক মি’লন অথবা সাঁতার, শরী,রচর্চা, খেলা,ধুলা ই,ত্যাদি থেকে ফেটে যেতে পারে৷ হা,ইমে,নোপ্লা,স্টি সাধা,রণত জাতিগত,

সাংস্কৃ,তিক বা ধ,র্মীয় বিশ্বা,সের কারণে করা হয়ে থাকে, যার মধ্যে দিয়ে ‘সতী,চ্ছদ না’রী স’তী,ত্বের প্রমাণ’ – এমন একটা ধারণা কারণ হি,সেবে নি’হিত থাকে৷

হা’ইমে,নো’প্লাস্টি দ্বারা ছি’দ্রহীন স’তীচ্ছ,দের ওপরও অ’স্ত্রপ্র’চার হয়ে থাকে৷ এরপর স’তীচ্ছ’দ স’ম্পর্কিত গুরুত্বপূর্ণ কি,ছু বিষয় তুলে ধরে,ছেন তিনি৷ লিখে,ছেন, ‘‘স’তী’চ্ছদ সম্প,র্কিত বা,স্তব বিষয়,গুলি হলো–

১. প্রতি ১০০০ হাজার মেয়ে শিশুর এক,জন সতী’চ্ছদ ছাড়াই ভূ,মিষ্ঠ হয়৷২. শত,করা ৪৪ শ,তাংশ না’রী,রই প্রথম,বার মি’লনে কোনো প্রকার র’ক্তপাত হয় না৷ ৩. খেলা,ধুলা কিংবা অন্য কো,নো কারণে

প্রা,কৃ,তিক ভাবেই স’তী’চ্ছদ ফে’টে যেতে পারে৷ ৪. মা’সিক র’জঃস্রা’বের সময় স’তী’চ্ছদে অবস্থিত ছি’দ্র র’ক্ত প্রবা,হকে স্বাভা,বিক রাখতে প্রাকৃ,তিক ভা,বেই বড় হয়ে যায়৷

৫. ‘টেমপন’ ব্যব,হারের ফলে স’তীচ্ছদ ছি’ড়ে যেতে পারে৷ ৬. সতী,চ্ছদ ফাট,লেই র’ক্তক্ষ’রণ হবে – এটি ভুল ধারণা৷ র’ক্তক্ষ’রণ ছাড়াও স’তী’চ্ছদ চিরে যেতে পারে৷ ওমর হাবিব আরো লিখে,ছেন,

‘‘আমা,দের দেশে এখনো বাসর রাতে সাদা রঙের বিছা,নার চাদর ব্যব,হার করতে দেখা যায়৷ যার উদ্দে,শ্যই হলো, প্রথম মিলনে স্ত্রী’র র’ক্তপা,ত হয়েছে কিনা – তা পরী,ক্ষা করা৷

অনেক সু-শি,ক্ষিত মানুষ,কেও দেখি তাঁর সদ্য বিয়ে করা স্ত্রীর স’তীত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুল,ছেন৷ এটা করা কি আ’দৌ ‘যৌ,ক্তিক, নিজে,র বিবে,ককে প্রশ্ন কর,বেন?”