পুরুষদের শা’রীরিক চা’হিদা কত বছর পর্যন্ত স্থা’য়ী থাকে

0
4

শা’রীরিক চাহি’দা প্রতিটি মানুষেরই থাকে। বিবাহিত জীবনে দম্পতিদের মধ্যে ঘনিষ্ঠতা বাড়ায় শা’রীরিক স’স্পর্ক। অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগে যে, পুরুষদের শা’রীরিক চাহি’দা কত বছর পর্যন্ত স্থা’য়ী থাকে? উত্তর হচ্ছে,

পুরুষদের বয়স বাড়ার স’ঙ্গে স’ঙ্গে কমে যেতে থাকে যৌ’ন ইচ্ছাও।

বয়সই তাদের যৌ’ন জীবনের পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায়।আ’সলে বয়সের স’ঙ্গে বেশ কিছু পরিবর্তন আসে পুরুষদের যৌ’ন জীবনে। যেমন- শুক্রাণুর পরিমাণ কমে যায়। যৌ’ন প্রক্রিয়া শেষ হতে অনেক সময় লে’গে

যায়।

বীর্য পতন খুব অল্প সময়ের জন্য হয়ে থাকে। স্বা’ভাবিক হতে প্রায় ১২ থেকে ২৪ ঘণ্টা সময় চলে যায়। সব থেকে বড় কথা হলো, যৌ’ন জীবন কিছুটা হলেও নির্ভর করে মা’নসিক এবং

শা’রীরিক প’রিস্থিতির ওপর। কিন্তু বয়সের স’ঙ্গে অনেকেরই মা’নসিক এবং শা’রীরিক কোনো ভাবেই স্বা’ভাবিক থাকে না। তাই তাদের যৌ’ন ইচ্ছাও কমে যেতে থাকে।আরো যেসব কারণে যৌ’ন চাহি’দা কমতে থাকে সেগুলো হলো-

অসংযম জীবনযাপন
বয়সের স’ঙ্গে শ’রীরে নানান পরিবর্তন আসে। যেমন অনেকেই নিজে’র মূত্রকে নিয়ন্ত্রণ ক’রতে পারেন না। তাই যৌ’ন জীবনের পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়ে যায় এই শা’রীরিক অবস্থা। আ’সলে বয়স বাড়লে শ’রীরের বিভিন্ন অ’ঙ্গ প্রতঙ্গ আলগা হয়ে যায়। তাই কোনো কিছুতেই সংযম ঠিক ঠাক ভাবে থাকে না।

টেস্টোস্টেরন হরমোনের হ্রাস
বয়সের স’ঙ্গে টেস্টোস্টেরন হরমোনের হ্রাস ঘটতে থাকে। ৬০ বছর বয়স হলে ধীরে ধীরে কমেই যায়। যার স’ঙ্গে যৌ’ন ইচ্ছাও একেবারেই কমে যেতে থাকে। কিন্তু এখন টেস্টোস্টেরন প্রতিস্থাপন করার প্রক্রিয়া আবিষ্কার হয়েছে।

যার ফলে অনায়াসেই অনেক বয়সেও স্বা’ভাবিক যৌ’ন জীবন উপভো’গ ক’রতে পারেন অনেকেই। এছাড়া যোগা করার ফলেও হরমোন নিঃসরণ স্বা’ভাবিক হয়ে থাকে।

শা’রীরিক অসু’স্থতা
শা’রীরিক অসু’স্থতার পথে অন্তরায় হয়ে দাঁড়ায় যৌ’ন জীবন। বেশিরভাগ ছেলের বয়সকালে হার্টের অসুখ, উচ্চ র’ক্তচা’পের কারণে যৌ’ন জীবনের প্রতি অনীহা চলে আসে। যাদের হার্টের অসুখ থাকে যৌ’ন স’স্পর্ক

স্থাপনের পর তারা অসু’স্থ হয়ে প’ড়েন। এছাড়া উচ্চ র’ক্তচা’পের ক্ষেত্রেও এই একই স’মস্যা দেখা দেয়।

ব্য’থা
আর্থারাটিস, ব্যাক পেন ইত্যাদি ব্য’থার কারণেও অনেক সময় স্বা’ভাবিক যৌ’ন জীবন উপভো’গ ক’রতে পারেন না অনেকেই। যৌ’ন স’স্পর্ক স্থাপন করার সময় ব্য’থা বেড়ে যায় অনেক সময়।

প্রস্টেট অ’স্ত্রপ’চার
প্রস্টেট অ’স্ত্রোপ’চার হওয়ার ফলে স্বা’ভাবিক যৌ’ন জীবন উপভো’গ ক’রতে পারেন না অনেকেই। তাই অ’স্ত্রপ’চার করার আগে আপনার ডাক্তারের স’ঙ্গে আপনার যৌ’ন জীবন স’স্পর্কে প’রামর্শ করে নিতে পারেন।

বিভিন্ন ওষুধ
বয়স হলেই বিভিন্ন রো’গ এসে জমা হয় শ’রীরে। বিভিন্ন রো’গের বিভিন্ন ওষুধ আর সেই বিভিন্ন ওষুধের বিভিন্ন প্র’তিক্রিয়া যার ফলে স্বা’ভাবিক যৌ’ন জীবন তো দূ’র অস্ত, সু’স্থ্য স্বা’ভাবিকভাবে বেঁ’চে থাকতেও পারন না অনেকেই। কখন কোন ওষুধ খাবেন তা মনে ক’রতে ক’রতেই সময় চলা যায়।